শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২৩
Homeজাতীয়বসলো মেট্রোরেলের শেষ স্ল্যাব

বসলো মেট্রোরেলের শেষ স্ল্যাব

শেষ স্ল্যাব বসানোর মধ্য দিয়ে বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি পূর্ণ অবোয়ব পেল উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত নির্মাণাধীন মেট্রোরেল লাইন। সকাল ১১ টায় সচিবালয় ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কংক্রিটের শেষ স্ল্যাবটি বসানো হয়।

আশপাশের বেশির ভাগ স্ল্যাবই আগে বসানো হয়েছিল। এর মাধ্যমে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার টানা উড়ালপথ নির্মাণে স্ল্যাব বসানো শেষ হলো।

ঢাকায় মেট্রোরেল নির্মাণের দায়িত্বে নিয়োজিত ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সকালেই মেট্রোরেলের শেষ স্লাবের দুই পাশে লাগানো হয়  বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা। এরপর ক্রেনের মাধ্যমে আস্তে আস্তে ওপরে ওঠানো হয়।

উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশে উড়ালপথের ওপর রেললাইন বসানো হয়। ওই অংশে পরীক্ষামূলকভাবে মেট্রোরেল চলাচল করছে। আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশে উড়ালপথের স্ল্যাব বসানো শেষ হলো। এবার এই অংশে শুরু হবে  রেললাইন বসানো, বিদ্যুৎ–ব্যবস্থাপনাসহ অন্যান্য কাজ।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশে মেট্রোরেল যাত্রী নিয়ে চলাচল করবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মেট্রোরেল প্রকল্পের অগ্রগতিসংক্রান্ত প্রতিবেদন অনুসারে, এই প্রকল্পের কাজের সার্বিক অগ্রগতি ৭৪ দশমিক ০৪ শতাংশ। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৯০ দশমিক ০৮ শতাংশ। আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত নির্মাণকাজ এগিয়েছে ৭৩ দশমিক ০৮ শতাংশ। উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত থাকছে ১৬টি স্টেশন। উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশের নয়টি স্টেশনের কাজ শেষ পর্যায়ে। বাকি সাতটি স্টেশনের কাজও বিভিন্ন পর্যায়ে চলমান। এ পর্যন্ত দেশে এসেছে ১০ সেট ট্রেন। প্রতি সেট ট্রেনে ছয়টি করে কোচ রয়েছে।

যাত্রীদের চলাচল সহজ করা এবং পাশের ফুটপাত উন্নত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এর বাইরে উত্তরাসহ কিছু স্টেশন ঘিরে আয়বর্ধক অবকাঠামো নির্মাণ করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এজন্য বাড়তি আয়ের লক্ষ্যে বিপণিবিতান, হোটেল, বিনোদনকেন্দ্রসহ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান খোলার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

বাংলানিউজ

সর্বশেষ সংবাদ