বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩
Homeপরিবেশ ও জীববৈচিত্র্যবায়ুদূষণে বাংলাদেশের মানুষের আয়ু গড়ে ৩ বছর কমছে

বায়ুদূষণে বাংলাদেশের মানুষের আয়ু গড়ে ৩ বছর কমছে

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের স্বল্পোন্নত দেশগুলোর মানুষের আয়ুষ্কালের ওপর বায়ুদূষণের প্রভাব সবচেয়ে বেশি। এসব দেশে অনেকে উচ্চমাত্রার বাহ্যিক (আউটডোর) ও অভ্যন্তরীণ (ইনডোর) বায়ুদূষণের দ্বিগুণ ভোগান্তির শিকার হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ওশেনিয়া, দক্ষিণ এশিয়া ও সাবসাহারান আফ্রিকা অঞ্চলে বায়ুদূষণের জন্য মানুষের আয়ুষ্কাল সবচেয়ে বেশি কমছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বায়ুদূষণের কারণে বাংলাদেশের মানুষের আয়ুষ্কাল গড়ে কমছে ২ দশমিক ৯ বছর। এর মধ্যে ১ দশমিক ১৬ বছর কমে বাইরের (আউটডোর) বায়ুদূষণে। আর ১ দশমিক ৫৩ বছর কমে ঘরের (ইনডোর) বায়ুদূষণে।

২০২০ সালের জরিপের ওপর ভিত্তি করে ২০২১ সালের জুনে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) জানায়, দেশের মানুষের গড় আয়ু ৭২ দশমিক ৮ বছর। এর মধ্যে পুরুষের গড় আয়ু ৭১ দশমিক ২ বছর। নারীর গড় আয়ু ৭৪ দশমিক ৫ বছর।

চীন, ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, মিয়ানমার ও ভুটানের চেয়ে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ুষ্কাল বায়ুদূষণের কারণে বেশি কমছে। অর্থাৎ, আয়ুষ্কালের ওপর বায়ুদূষণের প্রভাব এই দেশগুলোর চেয়ে বাংলাদেশের ওপর বেশি।

বায়ুদূষণের কারণে চীনে মানুষের আয়ুষ্কাল গড়ে কমে ১ দশমিক ৮৫ বছর। ভারতে ২ দশমিক ৬৯ বছর। পাকিস্তানে ২ দশমিক ৮৩ বছর। আফগানিস্তানে ২ দশমিক ৬৬ বছর। মিয়ানমারে ২ দশমিক ৬১ বছর। ভুটানে ২ দশমিক শূন্য ৯ বছর।

বায়ুদূষণের কারণে এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয়ুষ্কাল কমে নেপালে। দেশটির মানুষের আয়ুষ্কাল গড়ে কমে ৩ দশমিক শূন্য ৫ বছর।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বায়ুদূষণের কারণে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি আয়ুষ্কাল কমা দেশ পাপুয়া নিউগিনি। দেশটির মানুষের আয়ুষ্কাল গড়ে কমে ৩ দশমিক ২ বছর। তারপর রয়েছে নাইজার (৩ দশমিক ১ বছর) ও সোমালিয়া (৩ দশমিক শূন্য ৪ বছর)। প্রতিবেদনে বলা হয়, তামাক ব্যবহারের কারণে মানুষের গড় আয়ুষ্কাল যতটা কমে, বায়ুদূষণের কারণেও প্রায় ততটাই কমে।

প্রথম আলো

সর্বশেষ সংবাদ

No posts to display