ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২০ অক্টোবর ২০২২

এইচএসসি পরীক্ষা ২ ঘণ্টা, কমেছে নম্বরও

অক্টোবর ২০, ২০২২ ১২:২৭ অপরাহ্ণ । ৯১ জন

চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের প্রতিটি পত্রের পরীক্ষা দিতে ২ ঘণ্টা সময় পাবেন শিক্ষার্থীরা। এরমধ্যে রচনামূলক অংশের পরীক্ষা দিতে পরীক্ষার্থীরা ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট সময় পাবেন। আর নৈর্ব্যক্তিক অংশের পরীক্ষা দিতে ২০ মিনিট সময় দেয়া হবে। এবারের পরীক্ষায় স্বাভাবিক পরিস্থিতির তুলনায় নম্বর ও কমিয়ে আনা হয়েছে। ২০২২ খ্রিষ্টাব্দের জন্য সংশোধিত ও পুনর্বিন্যাসকৃত সিলেবাসে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে এইচএসসি ও সমমানের প্রতিটি পত্রের পরীক্ষা দিতে শিক্ষার্থীরা ৩ ঘণ্টা সময় পান। আর প্রতি পরীক্ষার মোট নম্বর থাকে ১০০। তবে, চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে ব্যবহারিকসহ বিষয়গুলোতে পরীক্ষার্থীদের প্রতি পত্রে ৪৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। এরমধ্যে রচনামূলকে ৩০ নম্বর ও নৈর্ব্যক্তিক থাকবে ১৫ নম্বর। আর মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ব্যবহারিক ছাড়া বিষয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের প্রতি পত্রে ৫৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। এরমধ্যে ৪০ নম্বর রচনামূলক পরীক্ষা ও ১৫ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে বাংলা দ্বিতীয় পত্র এবং ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা হবে ৫০ নম্বরের।

চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রতিটি বিষয়ের তত্ত্বীয় অংশে ৮টি প্রশ্ন থাকবে, যার মধ্য থেকে ৩টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। তত্ত্বীয় পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট। আর এ বিভাগের পরীক্ষার্থীদের নৈর্ব্যক্তিক অংশে ২৫টি প্রশ্ন থেকে ১৫টির উত্তর দিতে হবে। সময় হবে ২০ মিনিট। আর মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রতিটি বিষয়ের তত্ত্বীয় অংশে ১১টি প্রশ্ন থাকবে, যার মধ্য থেকে ৪টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। তত্ত্বীয় পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট। আর এ দুই বিভাগের পরীক্ষার্থীদের নৈর্ব্যক্তিক অংশে ২০ মিনিট সময়ে ৩০টি প্রশ্ন থেকে ১৫টির উত্তর দিতে হবে।

চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের ১২ লাখ ৩ হাজার ৪০৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে নয়টি সাধারণ ধারার শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবেন ৯ লাখ ৮৫ হাজার ৭১৩ জন শিক্ষার্থী। আর মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিতব্য আলিম পরীক্ষায় অংশ নেবেন ৯৪ হাজার ৭৬৩ জন। আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি বিএম, ভোকেশনাল এবং ডিপ্লোমা ইন কমার্স পরীক্ষায় অংশ নেবেন ১ লাখ ২২ হাজার ৯৩১ জন পরীক্ষার্থী। ৯ হাজার ১৮১টি প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা ২ হাজার ৬৪৯ টি কেন্দ্র এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা দেবেন।

আগামী ৬ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত নয়টি সাধারণ বোর্ডের এইচএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলবে। আর ১৫ থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত হবে এইচএসসির ব্যবহারিক পরীক্ষা। আলিমের তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলবে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ১৫ থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত হবে আলিমের ব্যবহারিক পরীক্ষা। ৬ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি বিএম-বিএমটি, ভোকেশনাল ও ডিপ্লোমা ইন কমার্সের তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলবে। আর ৮ থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত এইচএসসি বিএম-বিএমটি, ভোকেশনাল ও ডিপ্লোমা ইন কমার্সের ব্যবহারিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা আয়োজনে আগামী ৩ নভেম্বর থেকে সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। আগামী ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।- দৈনিক শিক্ষা

Paris