ঢাকাবুধবার , ২২ মার্চ ২০২৩
  • অন্যান্য

শক্তিশালী ভূমিকম্পে পাকিস্তানে নিহত বেড়ে ৯

মার্চ ২২, ২০২৩ ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ । ১০৪ জন

পাকিস্তান-আফগানিস্তানের সীমান্তবর্তী আফগান অঞ্চল বাদাকসানের জুর্ম শহরে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। মঙ্গলবার (২১ মার্চ) রাতের এই ভূমিকম্পের রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৮। এটি ৩০ সেকেন্ড পর্যন্ত স্থায়ী হয়।

পিডিএমএ’র রিপোর্ট অনুযায়ী, ভূমিকম্পে পাকিস্তানের কেপি প্রদেশের বিভিন্ন জেলায় নয়জনের প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছেন ৪৪ জন।

পাক সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ জানিয়েছে, ভূমিকম্প কবলিত এলাকায় উদ্ধার অভিযান চলছে। কেপির হাসপাতালগুলোতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

আফগানিস্তানে উৎপত্তি হওয়া এ ভূমিকম্পের শক্তিশালী কম্পন ভারত ও পাকিস্তানেও অনুভূত হয়। পাকিস্তানে ৯ জন ছাড়াও আফগানিস্তানে ২ জন নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর ভূমিকম্পে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল-পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ ও লাহোরেও কম্পন অনুভূত হয়েছে। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি ও কাশ্মির থেকেও এ কম্পন অনুভূত হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জিওলজিক্যাল সার্ভে (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল আফগানিস্তানের শহর জুর্ম থেকে ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্ব দিকে পাকিস্তান ও তাজিকিস্তান সীমান্তের কাছাকাছি।

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সেখানে ভূমিকম্পে ঘরের দেয়াল ধসে ১০ বছর বয়সী এক মেয়ে ও ২৪ বছর বয়সী এক তরুণ নিহত হয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিক আফগানিস্তান ও ভারত থেকে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

খাইবার পাখতুনখাওয়ার উদ্ধারকারী সংস্থা রেসকিউ ১১২২-এর মুখপাত্র বিলাল ফাইজি বলেন, সেখানকার সোয়াত জেলায় ভূমিধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। সেখানে ২০টির বেশি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে অনেক মানুষ আহত হয়েছেন।

সোয়াত উপত্যকার হাসপাতালগুলোতে অন্তত ২৫০ মানুষকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১৫ জন সামান্য আহত হয়েছে। আর ভূমিকম্পের প্রভাবে দুই শতাধিক মানুষ অজ্ঞান হয়েছিলেন। এই প্রদেশের অন্যান্য এলাকায় ৫২ ব্যক্তি আহত হয়েছেন বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাদের ভূমিকম্প পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য সতর্ক থাকতে বলেছেন।