ঢাকাশুক্রবার , ৩১ মার্চ ২০২৩

ক্যাসেটের যুগ শেষ হয়ে ইউটিউবও ধুঁকছে: আসিফ

মার্চ ৩১, ২০২৩ ১২:৪০ অপরাহ্ণ । ১১২ জন

বাংলা গানের যুবরাজ আসিফ আকবর বলেছেন, ‘সব পক্ষের ভুলের কারণেই আজ গানের বাজার মৃত। ক্যাসেটের যুগ শেষ হয়ে এখন ইউটিউব যুগও ধুঁকছে। বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) সন্ধ্যায় ফেসবুক এক দীর্ঘ স্ট্যাটাসে সঙ্গীতাঙ্গনের বর্তমান প্রেক্ষাপট এভাবেই তুলে ধরেছেন ‘ও প্রিয়া’খ্যাত এই গায়ক।

আসিফ লেখেন, গত বাইশ বছর অডিও সার্কিটের সব ডাইমেনশনে কাজ করেছি। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ক্যাসেট সিডির যুগ গত হয়েছে ২০১০ সালেই। এখন ইউটিউবের যুগও ধুঁকছে, একটি গানে কোটি ভিউয়ে রিটার্ন বিশ হাজার টাকাও আসে না। মিউজিক ভিডিওতে মোটা অংক বিনিয়োগ করে ভিউয়ের ইঁদুর দৌড় আপাতত শেষ।

গানের বাজারে পেশাদার প্রযোজকরা সরে যেতে বাধ্য হয়েছেন- উল্লেখ করে তিনি লেখেন, গানের প্রডিউসররা তাদের বিনিয়োগ নিয়ে ঝাঁপিয়ে পরেছিল নাটকের পিছনে, সেই খাতও মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। নাটকের ভিতরে গান ঢুকিয়ে আপৎকালীন অক্সিজেন দিয়ে গানের ব্যবসার দিনও শেষ। সব মিলিয়ে গানের বাজারে পেশাদার অডিও প্রযোজকরা এখন সরে যেতে বাধ্য হয়েছেন, আর কখনোই ফিরে আসবেন না।

ইউটিউব নির্ভরতার কারণে মূলত এই বিপর্যয়- এমনটিই মনে করছেন আসিফ। তার মতে, প্রযোজকদের দ্রুত মুনাফা অর্জন আর গানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের ভুলের কারণেই গানের বাজার মৃত। এখন অ্যামেচার শিল্পী আর মৌসুমী প্রযোজকদের জন্যই কিছু বিনিয়োগ ঢুকছে। ইউটিউব নির্ভরতার কারণে মূলত এই বিপর্যয়। বিশ্বের প্রায় দুইশো অ্যাপ বা পোর্টালে ডিজিটালি গান বিক্রির সুযোগ আছে, সেখানে কোম্পানীগুলো পৌঁছতে ব্যর্থ হয়েছেন, নতুন বিনিয়োগের সক্ষমতাও হারিয়েছেন।

যোগ করে আসিফ লেখেন, কপিরাইটের আইনি দূর্বলতায় সিনেমার গানের রেভিনিউ একচেটিয়া ভোগ করছে দু’একটি কোম্পানী এবং তারা পুরোটাই ফাও খাচ্ছে। আসছে রোজার ঈদের অডিও বাজার দেখলেই সবাই বুঝে যাবেন গানের বাজারের কফিনে শেষ পেরেক ঠোকার কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে।

একটি মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়ে গানের সঙ্গে সমস্ত সম্পৃক্ততা গুটিয়ে নিয়েছে। বিষয়টিও উল্লেখ করেন এই গায়ক। তার সঙ্গে আসিফ লেখেন, অতিউৎসাহী কিছু শিল্পী গীতিকার সুরকারের মামলার কারণে অন্য টেলকোগুলোও গানের জগতে ব্যবসা বৃদ্ধির আগ্রহ দেখায়নি। এই ফাঁকে গানের বাজারের দখল নিবে বহুজাতিক কোম্পানী, তবে সেখানে লিমিটেড কিছু আর্টিস্ট ছাড়া সবার কাজের সুযোগ থাকবে না।

বর্তমান ও ভবিষৎ নিয়ে চরম হতাশা প্রকাশ করলেন আসিফ এভাবে- মিউজিক ভিডিওতে লাগামহীন পুঁজি খাটানো প্রযোজকদের হিসাব মিলাতে গিয়ে মাথার চুলে পাক ধরেছে ইতোমধ্যে। দীর্ঘ গবেষণায় নিশ্চিতভাবে বলতে পারি, কোন অডিও কোম্পানী আর কখনোই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারবে না।

শিল্পী সমাজকে স্বার্থপর মনে করেন আসিফ। একইসঙ্গে জানান তিনি নিজে বেশ ভালো আছেন। বিষয়টি লেখনিতে তুলে ধরলেন এভাবেই-গীতিকার, সুরকার, শিল্পী আর প্রযোজকদের মধ্যে বানরের পিঠা ভাগের মতো যুদ্ধ চলছে, চলবে আর এটাই এই দেশের স্বার্থপর শিল্পী সমাজের আসল নিয়তি। এত সব সার্কাসের ভিড়ে আমি বেশ ভালো আছি, আলহামদুলিল্লাহ।- বাংলানিউজ