ঢাকামঙ্গলবার , ৪ এপ্রিল ২০২৩

রাজশাহী কলেজ অধ্যাপকের স্ত্রীর রক্তাক্ত মরদেহ

এপ্রিল ৪, ২০২৩ ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ । ১৪১ জন

পাবনার ঈশ্বরদীতে রাজশাহী কলেজের অধ্যাপক মৃত হাবিবুল্লাহর স্ত্রীকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার (৩ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নিজ বাড়িতে হাজেরা খাতুনের (৭৫) রক্তাক্ত মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা।

নিহত নারী পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হবিবুল ইসলাম হব্বুলের বোন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নিহত হাজেরা খাতুনের ৩ ছেলে ও ৪ মেয়ের মধ্যে দুই মেয়ে বিদেশে থাকেন। অন্যরা ঢাকায় বসবাস করেন। স্বামী মারা যাওয়ায় হাজেরা খাতুন মাঝে মধ্যে ঢাকায় মেয়েদের কাছে আবার কখনো ঈশ্বরদীর নিজ বাড়িতে একাই থাকতেন। সোমবার সকাল ১১টার দিকে তাকে বাড়ির পাশের বাগানে ঘুরতে দেখে স্থানীয়রা। বিকেলের দিকে ঢাকা থেকে মেয়েরা ফোন করে মাকে না পেয়ে মামা হব্বুল ও প্রতিবেশীদের বিষয়টি জানান। প্রতিবেশীরা বাড়িতে ঢুকে শয়নকক্ষ তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে ঘরে ওই নারীর রক্তাক্ত মরদেহ দেখে ক্রাইম সিনকে খবর দেয়।

নিহতের ভাই হবিবুল ইসলাম হব্বুল বলেন, ইফতারের একটু আগে ঢাকা হতে ভাগ্নিদের ফোন পেয়ে মাগরিবের নামাজের পর এসে দেখি রক্তাক্ত অবস্থায় বোন খাটের নিচে পড়ে আছে। ঘরের আলমারি খোলা এবং কাপড়-চোপড় ছিটানো রয়েছে। বোনের মরদেহ দেখার পর আমার আর কিছু বলার শক্তি নেই। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আমি শাস্তি চাই।

ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার গোস্বামী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ক্রাইম সিনকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা এসে মরদেহ উদ্ধার করবে। এরপর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।  কিভাবে হত্যা করা হয়েছে, সে বিষয়ে এখনই কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। ময়নাতদন্ত হবে। ঘটনা উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। তবে ঘরের আলমারি খোলা এবং কাপড়-চোপড় ছড়ানো-ছিটানো ছিল।-সূত্র: ঢাকা পোস্ট

Paris