ঢাকাসোমবার , ৩১ জুলাই ২০২৩

সরকারের ক্ষমতা এখন কচু পাতার পানির মতো: মিনু

জুলাই ৩১, ২০২৩ ৮:৫৭ অপরাহ্ণ । ১৪২ জন

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেছেন, এ সরকার এখন অন্তঃসারশূন্য হয়ে পড়েছে। তাদের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে। এ সরকারের ক্ষমতা এখন কচু পাতার পানির মতো টলমল করছে। কেবল সময়ের অপেক্ষা। ২৭ জুলাই ভয়ে বিএনপি ঘোষিত ঢাকায় মহাসমাবেশ করতে দেয়নি।

সোমবার (৩১ জুলাই) বিকেলে রাজশাহী জেলা ও মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে সরকার পতনের একদফা আদায়ের লক্ষ্যে আয়োজিত বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

মিনু বলেন, নেতাকর্মীদের আটক ও নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং সরকার পতনের একদফা দাবিতে ২৯ জুলাই ঢাকায় মোড়ে মোড়ে শান্তিপূর্ণ অবস্থান করতে গেলে আওয়ামী লীগের পেটোয়া বাহিনীর সঙ্গে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগসহ তাদের অঙ্গ সংগঠনের সন্ত্রাসীরা বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মেরে আহত করেছে। শুধু তাই নয়, স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানকে রাস্তায় ফেলে পুলিশ বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে। আবার তাদের একজনকে এ অবৈধ প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধি হাসপাতালে দেখতে গেছে। আর গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে চিকিৎসা দিয়ে সরকারের আজ্ঞাবহ দালাল ডিবিপ্রধান নিজ কার্যালয়ে নিয়ে ভূরিভোজ করাচ্ছে। এসব নাটক করে কেউ পার পাবে না। সময় এসে গেছে সবগুলোর বিচার এ বাংলার মাটিতেই হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

মিনু বলেন, এ সরকার মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও তারা মূলত বাকশাল কায়েম করেছে। দেশের টাকা বিদেশে পাচার করে দেশকে একটি তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করেছে। কোনো ব্যাংকেই এখন অর্থনৈতিক তারুল্য নেই। কয়েকদিন আগে এ সরকারের বাণিজ্যমন্ত্রী সিন্ডিকেট করে কাঁচামরিচ জনগণকে বারশ টাকা কেজি দরে খাইয়েছে। সেইসঙ্গে প্রতিটি নিত্যপণ্যের মূল্য আকাশচুম্বী হওয়ায় জনগণের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। কিন্তু এগুলো এ সরকারের চোখে পড়ে না। বিএনপি জনগণের অধিকার নিয়ে কথা বললে ও মাঠে নামলে এ সরকারের সন্ত্রাসীরা পুলিশের সহায়তায় হামলা করে। একা মাঠে নামার কোনো শক্তি এ বিনা ভোটের সরকারের নেতাকর্মীদের নেই বলে উল্লেখ করেন তিনি। সেইসঙ্গে এ অবৈধ সরকারের কবল থেকে দেশ ও জনগণকে রক্ষার একদফা দাবি আদায়ের আন্দোলনে সবাইকে রাজপথে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সহ-সম্পাদক ও রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদসহ সব রাজবন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়ে বক্তব্য শেষ করেন মিনু।

রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এরশাদ আলী ঈশার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, রাজশাহী মহানগর বিএনপি সাবেক সভাপতি ও রাসিকের সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নাদিম মোস্তাফা, রাজশাহী জেলা বিএনপির সদস্য সচিব সাইফুল ইসলাম মার্শাল ও সদস্য সচিব অধ্যাপক বিশ্বনাথ সরকার।

রাজশাহী মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মামুন অর রশিদ মামুনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপির সদস্য দেবাশীষ রায় মধু, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন, ওয়ালিউল হক রানা, জয়নাল আবেদিন শিবলী, শাফিকুল ইসলাম শাফিক, বজলুল হক মন্টু, জেলা বিএনপির সদস্য অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, মোহাম্মদ মহসিনসহ বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। বাংলানিউজ

Paris