ঢাকাসোমবার , ৩১ জুলাই ২০২৩
  • অন্যান্য

‘সরকারের পতন ছাড়া আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না’

জুলাই ৩১, ২০২৩ ৬:২৫ অপরাহ্ণ । ১৩৫ জন

অতীতের মতো হামলা করে মামলা দিয়ে এবারের আন্দোলন দমন করা যাবে না বলে সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিএনপি নেতারা।

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত জনসমাবেশে এই হুঁশিয়ারি দেন তারা।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।  সভাপতিত্ব করছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম। সমাবেশ সঞ্চালনা করছেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্য সচিব আমিনুল হক ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সদস্যসচিব তানভীর আহমেদ।

সরকার পতনের এক দফা দাবি আদায়ে ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশমুখে অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে বিভিন্ন এলাকায় নেতাকর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, আজকে পুলিশ বিএনপিকে সমাবেশ করার যে শর্ত দিয়েছে, সেখানে একটি শর্তে বলা হয়েছে সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তি মঞ্চে থাকতে পারবে না এবং তার বক্তব্যও প্রচার করতে পারবে না। কাকে বুঝিয়েছে তারেক রহমানকে? যিনি এই স্বৈরাচারী সরকারের বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করেছে।

আজকে আওয়ামী লীগ দেউলিয়া হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপির এই নেতা।

সমাবেশে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বলেন, বিগত কয়েক দিনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানুল্লাহ আমানসহ বহু নেতাকর্মীর ওপর হামলা হয়েছে। কেবল কৃষক দলেরই শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

‘আওয়ামী লীগ পচে–গলে দেশে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে’ মন্তব্য করে শহিদুল ইসলাম বলেন, তারা বিএনপির নেতাকর্মীদের হত্যা করে আন্দোলন দমিয়ে রাখতে চাইছে। কিন্তু সরকারের পতন ছাড়া আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না।

বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সভাপতি হারুন আল রশীদ বলেন, তারা ভেবেছে অত্যাচার করে, হামলা চালিয়ে আন্দোলন থামিয়ে দেবে। কিন্তু হামলা করে জুলুম করে এই আন্দোলন থামানো যাবে না।

যুগান্তর