ঢাকামঙ্গলবার , ১ আগস্ট ২০২৩
  • অন্যান্য

আমাকে বলির পাঁঠা বানানো হয়েছে: নোরা

আগস্ট ১, ২০২৩ ৭:৫৫ অপরাহ্ণ । ১৬৬ জন

২০২১ সালে শুরু হওয়া কনম্যান সুকেশ চন্দ্রশেখরের ২০০ কোটি রুপি মানি লন্ডারিং ও চাঁদাবাজির মামলায় ফেঁসে রয়েছেন বলিউডের দুই সুন্দরী নোরা ফাতেহি এবং জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ। নোরার অভিযোগ, তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন গণমাধ্যম ও জ্যাকলিন মিথ্যা তথ্য বর্ণনা করেছেন।

এজন্য তিনি সোমবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে হাজির হন। মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কপিল গোপ্তার সামনে তিনি তার বক্তব্য পেশ করেন। নোরা আদালতে জ্যাকুলিন এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন। এ সময় তিনি বলেছেন, মিডিয়া আমাকে বলির পাঁঠা হিসেবে ব্যবহার করেছে। খবর এনডিটিভির।

আজ দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে নিজের জবানবন্দি দিতে হাজির হয়েছিলেন নোরা

পাতিয়ালা হাউস কোর্টে হাজির হয়ে ফাতেহি বলেন, এ মানহানির মামলাটি জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ, অন্যান্য বিভিন্ন চ্যানেল এবং প্রকাশনার বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে, যারা মিথ্যা বর্ণনার মাধ্যমে জনসাধারণের চোখে আমার খ্যাতি নষ্ট করেছে। তারা আমাকে ‘স্বর্ণ খননকারী’ বলে উল্লেখ করেছেন; অভিযোগ করা হয়েছে সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে আমার সম্পর্ক রয়েছে।’

এই অভিনেত্রী বলেন, মিথ্যা তথ্য প্রচারে আমার আর্থিক এবং খ্যাতির ক্ষতির কারণ হয়েছে। সুকেশের বিরুদ্ধে ২০০ কোটি আর্থিক জালিয়াতির যে অভিযোগ রয়েছে সে বিষয়ে আমার কোনো ধারণা নেই। আমি মনে করি, মিডিয়া আমাকে বলির পাঁঠা হিসেবে ব্যবহার করেছে এবং আমি একজন বহিরাগত তাই একটি সফট টার্গেট হিসেবে নেওয়া হয়েছে। জ্যাকলিনও আমাকে এ মামলার সঙ্গে জড়িয়ে ফেলেছেন। আর জ্যাকলিন আমার বিরুদ্ধে রীতিমতো ষড়যন্ত্র করেছেন। আমি আমার ক্যারিয়ারের সমস্ত ক্ষতির জন্য ক্ষতিপূরণ চাই।

সোমবার অভিনেত্রীর বয়ান রেকর্ডের পর তাকে আগামী সেপ্টেম্বরে আবারো ডাকা হয়েছে।

যুগান্তর