ঢাকারবিবার , ২১ জানুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য

রাজশাহী চেম্বারের নতুন পরিচালনা পরিষদের শপথ গ্রহণ অনুষ্টিত

জানুয়ারি ২১, ২০২৪ ৯:৪৭ অপরাহ্ণ । ৮০ জন

রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির ২০২৪-২০২৬ দ্বি-বার্ষিক মেয়াদের পরিচালনা পর্ষদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার রাত ৮টায় চেম্বার ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি, সহ-সভাপতি ও পরিচালকবৃন্দকে শপথবাক্য পাঠ করান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।
অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পুনরায় নির্বাচিত সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, এফবিসিসিআই এর পরিচালক মো.শামসুজ্জামান আওয়াল, রাজশাহী ওমেন চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি রোজিটি নাজনীন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন  বলেন, রাজশাহীতে দীর্ঘদিনেও শিল্পায়ন হয়নি। শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। আইটি সেক্টরকে কাজে লাগিয়ে বেকার তরুণ-তরুণীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিসিক শিল্পনগরী-২ এর কাজ শেষ হয়েছে। সেখানে প্রকৃত উদ্যোক্তাদের প্লট বরাদ্দের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।
তিনি আরো বলেন, পদ্মা নদীতে ড্রেজিং এর মাধ্যমে নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনা ও নগরীতে নৌবন্দর প্রতিষ্ঠার কাজে অগ্রগতি হয়েছে। এই কাজটি বাস্তবায়ন হলে রাজশাহীর অর্থনীতি গতিশীল হবে। সেখানেও অনেক মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। রাজশাহীতে শিল্পায়নের ক্ষেত্রে চেম্বার অব কমার্সকেও গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে হবে।
রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির ২০২৪-২০২৬ দ্বি-বার্ষিক মেয়াদের নির্বাচিতরা হলেন, সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু, সহ-সভাপতি মো. সুলতান মাহমুদ, শাহাদত হোসেন বাবু, পরিচালকবৃন্দ ফরিদ উদ্দিন, তৌরিদ আল মাসুদ, মোঃ হারুন উর রশীদ, মোঃ সাদরুল ইসলাম, রিয়াজ আহমেদ খান, এ.বি.এম হাবিবুল্লাহ ডলার, মোঃ আব্দুল গাফফার, মোঃ মাসুম সরকার, সাজ্জাদ আলী, মো. কবির হোসেন, মো. কামরুজ্জামান, নাজমুল হোসেন, তৌহিদুল হাসান, আশিকুর রহমান তুহিন, মামুনুর রশীদ, মোঃ মতিউল হক ও এস.এম আইয়ুব।

Paris