ঢাকাবুধবার , ১৭ এপ্রিল ২০২৪
  • অন্যান্য

রাজশাহীতে মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড, অব্যাহত থাকতে পারে কয়েক দিন

এপ্রিল ১৭, ২০২৪ ৯:০৯ অপরাহ্ণ । ৪৭ জন

তীব্র তাপদাহে কাহিল হয়ে পড়েছে রাজশাহীর জনজীবন। সর্বোচ্চ তাপমাত্রার পাদর উঠছে, কোনোভাবেই আর নিচে নামছে না। এমন অবস্থায় দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে পদ্মা পাড়ের রাজশাহী জনজীবন। রোদে কোথাও স্বস্তি নেই।

এরই মধ্যে রাজশাহীতে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড করা হয়েছে আজ। বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেল ৩টায় তাপমাত্রার পারদ উঠে ছিল ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এ সময় বাতাসের আদ্রতা ছিল ৩০ শতাংশ।

এর আগের দিন মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) ছিল ৩৯ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং তার আগের দিন সোমবার (১৫ এপ্রিল) ছিল ৩৯ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অর্থাৎ রাজশাহীতে চলমান মাঝারি তাপপ্রবাহ আজ তীব্র তাপপ্রবাহে রূপ নিয়েছে।

১ এপ্রিল থেকে রাজশাহী অঞ্চলে মৃদু তাপপ্রবাহ শুরু হয়। এর মধ্যে ৪ এপ্রিল তাপমাত্রার রেকর্ড করা হয়ে ছিল ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এরপর মৃদু তাপপ্রবাহ মাঝারি তাপপ্রবাহে রূপ নেয়। আজ তাপমাত্রা ৪০ ছাড়িয়ে তা তীব্র তাপপ্রবাহে পৌঁছাল।

রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার জানিয়েছে, এটি চলতি মৌসুমের এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক রাজীব খান বলেন, সামান্য বিরতি দিয়ে থার্মোমিটারে তাপমাত্রার পারদ আজ ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়েছে। বুধবার বিকেল ৩টায় রাজশাহীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড করা হয়েছে ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড করা হয়েছে ২৫ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দুপুরের পর আকাশে ছিটেফোঁটা মেঘ দেখা যাচ্ছে। তাই আজ তাপমাত্রা আর বাড়ার আশঙ্কা নেই। তবে আগামী কয়েক দিন রাজশাহী অঞ্চলে এই তীব্র তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। এই সময় তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে বলেও জানান।

সাধারণত ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে তাপপ্রবাহ শুরু হয়। ৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বলা হয় মৃদু তাপপ্রবাহ। ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বলা হয় মাঝারি তাপপ্রবাহ। আর ৪০ থেকে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বলা হয় তীব্র তাপপ্রবাহ। এছাড়া দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে উঠলেই তা অতি তীব্র তাপপ্রবাহ হিসেবে ধরা হয় বলেও উল্লেখ করেন রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণগারের ওই আবহাওয়া কর্মকর্তা।

এদিক মৌসুমের সর্বোচ্চ এই তাপমাত্রায় রাজশাহীর প্রকৃতি যেন রুদ্রমূর্তি ধারণ করেছে। সকাল থেকেই আগুন ঝরাচ্ছে সূর্য। প্রকৃতি যেন তপ্ত নিঃশ্বাস ছাড়ছে। গাছের সবুজ পাতাগুলো হয়ে উঠেছে বিবর্ণ। বাইরে বইছে গরম বাতাস। আদ্রতা কমে যাওয়া পথেঘাটে থাকা মানুষের গলা শুকিয়ে যাচ্ছে। ভবনের ট্যাপকল দিয়ে বের হচ্ছে ফুটন্ত পানি। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। টানা তাপদাহে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা অচল হয়ে পড়েছে। বাড়ছে হিটস্ট্রোক ও ডায়রিয়াসহ পানিবাহিত বিভিন্ন রোগবালাই।

বাংলানিউজ