ঢাকাশনিবার , ২০ এপ্রিল ২০২৪
  • অন্যান্য

তীব্র তাপপ্রবাহে পুড়ছে পাবনা, হিটস্ট্রোকে একজনের মৃত্যু

এপ্রিল ২০, ২০২৪ ৮:০৯ অপরাহ্ণ । ৩২ জন

তীব্র তাপদাহে পুড়ছে পাবনা জেলা। অসহনীয় গরম ও তাপদাহে হিটস্ট্রোক হয়ে সুকুমার চন্দ্র দাস (৭০) নামে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে পাবনা শহরের রুপকথা রোডে একটি চায়ের দোকানে চা খাওয়ার সময় হিটস্ট্রোক করেন তিনি। এ সময় আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সুকুমার চন্দ্র দাস সদর পৌর এলাকা শালগাড়িয়া মহল্লার বাসিন্দা।

এদিকে তীব্র তাপপ্রবাহে পুড়ছে গোটা পাবনা জেলা। অসহনীয় গরমে অতিষ্ঠ জেলার জনজীবন। একদিকে তীব্র তাপদাহ অপরদিকে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পাবনার ঈশ্বরদীতে। ঈশ্বরদী আবহাওয়া অফিসের দেওয়া তথ্য মতে আজ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ঈশ্বরদী আবহাওয়া অফিসের সহকারী পর্যবেক্ষক নাজমুল হক রঞ্জন জানান, কয়েকদিন ধরেই পাবনায় ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। শনিবার রেকর্ড করা হয়েছে ৪১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে, এ বছর এতো তাপমাত্রা রেকর্ড হয়নি। ঈশ্বরদীসহ আশপাশের এলাকাজুড়ে তীব্র তাপপ্রবাহ বইছে। এ তাপমাত্রা আরও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে তীব্র গরমে মানুষের হাঁসফাঁস অবস্থা। তীব্র এই তাপপ্রবাহে সব থেকে সবচেয়ে বেশি কষ্টে আছেন শ্রমজীবী মানুষ। জীবন-জীবিকার তাগিদে তীব্র রোদে কাজ করতে হচ্ছে খেটে খাওয়া মানুষদের। বাইরে বের হওয়ার সময় অনেকেই ছাতা নিয়ে বের হতে দেখো গেছে।

তবে হিটস্ট্রোক জনিত মৃত্যুর ঘটনার বিষয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক অফিসার ডা. জাহিদুল ইসলাম বলেন, এটি হিটস্ট্রোক জনিত মৃত্যু কি-না সেটি পরীক্ষা করে দেখে বলতে হবে। অসুস্থ হয়ে এক রোগী আমাদের হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসেন। ওই সময়ে দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করেছেন।

বাংলানিউজ

Paris