ঢাকাবুধবার , ৮ মে ২০২৪

প্রতীক্ষার অবসান, রাজশাহীতে ৫১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত

মে ৮, ২০২৪ ৮:১৮ অপরাহ্ণ । ৩৬ জন

তাপপ্রবাহ কেটে গিয়ে গেল কয়েক দিন ধরেই ঝড়-বৃষ্টি হচ্ছিল দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। ব্যতিক্রম ঘটেছিল কেবল তপ্ত মহানগর রাজশাহীর ক্ষেত্রেই। বৃষ্টির প্রতীক্ষায় হাপিত্যেশ বাড়ছিল রাজশাহীবাসীর। কমবেশি সব জেলায় যখন স্বস্তির বৃষ্টি ঝরছিল, তখনও পদ্মাপারের এ শহরে বৃষ্টি দেখা যায়নি। তবে গরমের বদলে বইছিল শীতল বাতাস।

গেল দুদিন এতেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল রাজশাহীবাসীকে। তবে দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটেছে। মঙ্গলবার (৭ মে) দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে রাজশাহীর তপ্ত রাজপথ ভিজিয়েছে স্বস্তির বৃষ্টি। রাত প্রায় ৩টা পর্যন্ত রাজশাহীতে ৫১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এটিই চলতি মৌসুমে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত।

বৃষ্টিতে রাজশাহীর তাপমাত্রা কমে ৩১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে এসেছে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বাড়তে বাড়তে গত ৩০ এপ্রিল ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠেছিল। দীর্ঘ ৫২ বছরের ইতিহাসে এটিই ছিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। এর মধ্যে এমন উষ্ণ মৌসুম আর দেখেনি রাজশাহীবাসী।

১৯৭২ সালের ১৮ মে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল রাজশাহীতেই। সেদিন রাজশাহীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৪৫ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা দেশের স্বাভাবিক তাপমাত্রার চেয়ে ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত তাপমাত্রার এ রেকর্ড আর ভাঙেনি।

কাঙ্ক্ষিত বৃষ্টির আশীর্বাদে বুধবার রাজশাহীর তাপমাত্রা পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। ৩০ এপ্রিলের ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার পর আটদিনের মাথায় রাজশাহীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কমল ১১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এতে টানা তীব্র তাপপ্রবাহের ধকল সাময়িকভাবে হলেও কাটল।

টানা তীব্র তাপপ্রবাহে এবার আম ও লিচু ঝরে পড়েছে। এতে চলতি মৌসুমে আম ও লিচুর উৎপাদন অর্ধেকে নেমে আসবে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ছাড়া টানা খরায় জমির বোরো ধানসহ বিভিন্ন ফসলও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মঙ্গলবার রাতের বৃষ্টিতে এ ক্ষতি পুষিয়ে ওঠা সম্ভব না হলেও প্রাণ-প্রকৃতি যেন কিছুটা হলেও প্রাণ ফিরে পেয়েছে। জনমনেও ফিরেছে স্বস্তি।

জানতে চাইলে রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক মো. গাওসুজ্জামান জানান, সর্বশেষ মার্চের ১৮, ১৯ ও ২০ তারিখ এ তিন দিন বৃষ্টিপাত হয়েছিল। তিন দিনে ২১ দশমিক ৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এরপর মঙ্গলবারই প্রথম ৫১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগে এপ্রিলে দুই দিন বৃষ্টিপাত হলেও তার পরিমাণ ছিল ১ মিলিমিটারেরও নিচে। সেই অর্থে এটি চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত। এ বৃষ্টির প্রভাবে রাজশাহী তাপমাত্রাও কমেছে।

বুধবার বিকেল ৩টায় রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাংলানিউজ

Paris